ঢাকা, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪,
সরকার অনুমোদিত নিবন্ধন নম্বর ১৯১
Reg:C-125478/2015

আইসিসির এলিট প্যানেলে প্রথম বাংলাদেশি আম্পায়ার সৈকত

ডেস্ক রিপোর্ট


প্রকাশ: ৩১ মার্চ, ২০২৪ ১৪:৩৩ অপরাহ্ন | দেখা হয়েছে ৩০ বার


আইসিসির এলিট প্যানেলে প্রথম বাংলাদেশি আম্পায়ার সৈকত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) বার্ষিক পর্যালোচনা এবং বাছাই প্রক্রিয়া শেষে আম্পায়ারদের এমিরেটস আইসিসি এলিট প্যানেলে প্রথম বাংলাদেশি আম্পায়ার সুযোগ পেয়েছেন বাংলাদেশের শরফুদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকত। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এই ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

আইসিসি মহাব্যবস্থাপক ওয়াসিম খান, সাবেক ক্রিকেটার এবং ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জরেকার, নিউজিল্যান্ডের অবসরপ্রাপ্ত আম্পায়ার টনি হিল এবং পরামর্শক কার্যনির্বাহী বিশেষজ্ঞ মাইক রিলির সমন্বয়ে গঠিত একটি নির্বাচন প্যানেল সৈকতকে এমিরেটস আইসিসি ইন্টারন্যাশনাল প্যানেল অফ আম্পায়ার থেকে এলিট প্যানেলে উন্নীত করা হয়।

সৈকত ২০০৬ সালে আন্তর্জাতিক প্যানেলে ঢুকলেও তার প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ ছিল ২০১০ সালের জানুয়ারিতে। মিরপুরে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার একটি ওডিআই দিয়ে তার আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়। এখন পর্যন্ত পুরুষদের ১০টি টেস্ট ম্যাচ, ৬৩টি ওয়ানডে এবং ৪৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মাঠের আম্পায়ার হিসেবে কাজ করেছেন। একই সঙ্গে মেয়েদের ১৩টি ওয়ানডে ও ২৮টি  টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১৭ ও ২০২১ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের অংশও ছিলেন সৈকত। ২০১৮ সালের নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে ২০২৩ সালের ভারত বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো পুরুষদের বিশ্বকাপে অংশ নেন এই আম্পায়ার। 

এলিট প্যানেলে যোগ দিতে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত সৈকত, 'আইসিসি এলিট প্যানেলে নাম লেখানো খুবই সম্মানের। প্যানেলে আমার দেশ থেকে প্রথম যোগ দেওয়া বিষয়টিকে আরও বিশেষ করে তুলেছে এবং আমি আমার প্রতি প্রদর্শিত বিশ্বাসকে সঠিক প্রমাণ করতে উন্মুখ। আমি অনেক বছর ধরেই মোটামুটি অভিজ্ঞতা পেয়েছি এবং আরও চ্যালেঞ্জিং অ্যাসাইনমেন্টের জন্য প্রস্তুত।'

এমিরেটস আইসিসি এলিট প্যানেল অব আম্পায়ার:

কুমার ধর্মসেনা (শ্রীলঙ্কা), ক্রিস্টোফার গ্যাফানি (নিউজিল্যান্ড), মাইকেল গফ (ইংল্যান্ড), অ্যাড্রিয়ান হোল্ডস্টক (দক্ষিণ আফ্রিকা), রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড), রিচার্ড কেটলবরো (ইংল্যান্ড), নিতিন মেনন (ভারত), আহসান রাজা (পাকিস্তান), পল রাইফেল (অস্ট্রেলিয়া), শরফুদ্দৌলা ইবনে শহীদ (বাংলাদেশ), রডনি টাকার (অস্ট্রেলিয়া) এবং জোয়েল উইলসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।

এমিরেটস আইসিসি এলিট প্যানেল অব ম্যাচ রেফারি:

ডেভিড বুন (অস্ট্রেলিয়া), জেফ ক্রো (নিউজিল্যান্ড), রঞ্জন মাদুগালে (শ্রীলঙ্কা), অ্যান্ড্রু পাইক্রফট (জিম্বাবুয়ে), রিচি রিচার্ডসন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) এবং জাভাগাল শ্রীনাথ (ভারত)।


   আরও সংবাদ